চরভাগায় আওয়ামীলীগ নেতা নুরুল হকের নামে ফেক আইডি খুলে সুনাম নষ্টের পাঁয়তারা !

0
1051

শরীয়তপুর প্রতিনিধি:
শরীয়তপুরের সখিপুর থানার চরভাগার কৃতি সন্তান, চরভাগা ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাবেক সফল সভাপতি, চরভাগা ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক, বিশিষ্ট সমাজ সেবক, শিক্ষানুরাগী, সাবেক সফল ছাত্রনেতা নুরুল হকের নামে ফেসবুকে ফেক আইডি সুনাম নষ্টের পাঁয়তারার অভিযোগ উঠেছে। এ ব্যাপারে আওয়ামীলীগ নেতা নুরুল হক সখিপুর থানায় একটি সাধারন সাধারন ডায়েরী করেছেন।

জানা যায়, শরীয়তপুরের সখিপুর থানার চরভাগার নুরুল হক দীর্ঘদিন যাবৎ আওয়ামীলীগের রাজনীতির সাথে জড়িত থেকে মানুষের কল্যাণে কাজ করে চলছেন। তিনি মানুষের যে কোনো বিপদে আপদে এগিয়ে যায়। তিনি গরিব-দুঃখী মানুষের হৃদয়ের স্পন্দন। এজন্য চরভাগা-সখিপুর -ভেদরগঞ্জ উপজেলা সহ জেলা ব্যাপী তাঁর সুনাম ছড়িয়ে পড়ে। এতে করে প্রতিহিংসার আগুনে জ্বলে ওঠে একটি কুচক্রীমহল। তারই ধারাবাহিকতায় সম্প্রতি ওই মহলটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তাঁর নামে ফেসবুকে ফেক আইডি খুলে বিভিন্ন ব্যক্তিদের কাছে অর্থ চায়। এ ঘটনায় শনিবার নুরুল হক সখিপুর থানায় একটি সাধারন ডায়েরী করেছেন।

এদিকে, আওয়ামীলীগ নেতা নুরুল হকের বিরুদ্ধে নানান মাধ্যমে অপপ্রচার ও সুনাম নষ্টের পাঁয়তারা করায় ফুঁসে উঠেছে সাধারন জনগণ ও দলের বিভিন্ন স্তরের নেতাকর্মীরা। তারা অবিলম্বে গুজব ও অপপ্রচারকারীদের আইনের আওতায় আনার দাবি জানিয়েছে। এব্যাপারে নুরুল হকহক বলেন, কুচক্রীমহল যতই ষড়যন্ত্র ও অপপ্রচার করুক; তাতে আমি থামবো না। আমি দল ও জনগণের জন্য সবসময় কাজ করেই যাবো। আমি সারাজীবন মানুষের কল্যাণে কাজ করতে চাই। এজন্য সকলের দোয়া ও আশির্বাদ কামনা করছি।

এব্যাপারে চরভাগা সহ বিভিন্ন এলাকার লোকজন ও দলীয় নেতাকর্মীরা বলেন, আওয়ামীলীগ নুরুল হক দীর্ঘদিন ধরে আওয়ামীলীগের রাজনীতি করে আসছে। সে মানুষের বিপদে আপদে পাশে দাঁড়ায়। তবে একটি কুচক্রীমহল সম্প্রতি তাঁর পিছু লেগেছে। কিন্তু তারা সফল হবে না। আমরা অতীতে তাঁর সাথে ছিলাম, বর্তমানে আছি, ভবিষ্যতেও থাকবো, ইনশাআল্লাহ।
এব্যাপারে সখিপুর থানার ওসি এনামুল হক বলেন, তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।
উল্লেখ্য, তিনি (নুরুল হক) করোনা সংকটের প্রথম থেকে পানি সম্পদ উপমন্ত্রী ও আওয়ামীলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক একেএম এনামুল হক শামীমের নির্দেশে খাদ্য বিতরণ করছেন তিনি। এছাড়াও উপমন্ত্রী শামীমের নির্দেশে অসহায় মানুষের পাশে দাড়ান। ব্যক্তিগত তহবিলের খাদ্য সামগ্রী দলীয় নেতাকর্মীদের বাড়ি বাড়ি পাঠান। নিয়মিত দলীয় নেতাকর্মীদের সাথে যোগাযোগ রাখেন।

পোস্টটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

আপনার মতামত কমেন্টস করুন