তৃতীয় মেয়াদে সঞ্জীবনের সভাপতি ফাহিম, সম্পাদক হৃদয়

0
249

সমাজসেবামূলক সংগঠন ‘সঞ্জীবন’ এর কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী পর্ষদের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক হিসেবে আবারও দায়িত্ব নিলেন সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা ও সদ্য সাবেক সভাপতি ফাহিম আহম্মেদ মন্ডল এবং সদ্য সাবেক সাধারণ সম্পাদক নূর হোসেন হৃদয়।

২০ মার্চ, ২০২০ ইং (শুক্রবার) সংগঠনের সদ্য বিদায়ী কমিটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহমুদুল হাসান সিয়াম স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে সঞ্জীবনের পক্ষ থেকে জানানো হয়, পরিচালনা পর্ষদ এবং সাধারণ পর্ষদের সকল সদস্যের মতের ভিত্তিতে আগামী ২১ মার্চ, ২০২০ ইং থেকে আগামী ২০২১ সালের ১০ মার্চ অবধি ফের প্রতিষ্ঠানের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করবেন ফাহিম-হৃদয়।

উল্লেখ্য, সঞ্জীবন কেন্দ্রীয় কমিটির প্রতিষ্ঠাকালীন সভাপতি ফাহিম আহম্মেদ মন্ডল। তিনি একই সঙ্গে সঞ্জীবনের মুখপাত্র ‘দৈনিক নবযুগ’ এর প্রকাশক। সাংবিধানিক বাধ্যবাধকতা থাকায় সঞ্জীবন প্রতিষ্ঠার পর এক বছর সভাপতিত্ব করে পদত্যাগ করেন তিনি। পরবর্তীতে ২০১৮-১৯ সেশনে সঞ্জীবন, প্রচার ও সৃজনশীল কর্মদপ্তরের চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। এরপর ২০১৯ সালে সর্বসম্মতিক্রমে পুনরায় কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সভাপতি পদে নির্বাচিত হন তিনি। সফলতার সঙ্গে সে দায়িত্ব পালন করার পর পুনরায় ২০২০ সালে তৃতীয়বারের মতো সংগঠনের শীর্ষ নেতৃত্বে অধিষ্ঠিত হলেন তিনি।

অন্যদিকে, সঞ্জীবনের প্রতিষ্ঠাকালীন কেন্দ্রীয় কমিটিতে প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন নূর হোসেন হৃদয়। এরপর ২০১৭ সালের শেষাংশে প্রথমে যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক এবং পরবর্তীতে ২০১৮ সালে সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব নেন তিনি। সফলতার সঙ্গে সে দায়িত্ব পালন করার স্বীকৃতি স্বরূপ ২০১৯ সালে পুনরায় এ পদে নির্বাচিত হন তিনি। ধারাবাহিক ভালো কাজের স্বীকৃতি স্বরূপ পরিচালনা পর্ষদ এবং সাধারণ পর্ষদের সকলের সম্মিলিত সিদ্ধান্তে ২০২০ সালে টানা তৃতীয়বারের মতো সংগঠনের শীর্ষে সাধারণ সম্পাদক হিসেবে অধিষ্ঠিত হলেন তিনি।

নতুন করে সভাপতির দায়িত্ব নিয়ে ফাহিম আহম্মেদ মন্ডল বলেন, “সংগঠন আমাদেরকে এমন অনেক সুযোগ তৈরী করে দেয়, যার মাধ্যমে আমরা খুব সহজেই মানুষের কাছে, সমাজের প্রান্তিক মানুষদের কাছে পৌছাতে পারি, মানুষের ভালোবাসা, আস্থা, বিশ্বাস অর্জন করতে পারি। নতুন নতুন মানুষের সাথে পরিচয় ও ঘনিষ্ঠ হবার সুযোগ থাকে। সঞ্জীবনে কাজ করার সুবাদে আমি ধারাবাহিকভাবেই উপরোক্ত সবগুলো সুযোগই পেয়েছি। সদস্যদের ভালোবাসা এবং ভরসার জায়গা থেকে আবারও সভাপতির দায়িত্ব গ্রহণ করছি। ইনশাআল্লাহ চেষ্টা থাকবে মুজিব বর্ষে সদস্যদেরকে স্মরণীয় ও বিশেষ কিছু উপহার দেয়ার এবং সংগঠনকে বিশেষ মাত্রা দেয়ার।তবে আমাদের প্রথম পদক্ষেপ হবে করোনা পরিস্থিতি মোকাবেলায় কীভাবে আমরা জনগণের পাশে দাড়াতে পারি, সে ব্যাপারে চিন্তা করা!”

সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব নিয়ে নূর হোসেন হৃদয় বলেন, “সংগঠনে বোঝাপড়া ব্যাপারটা খুব প্রয়োজনীয়। আমার এবং ফাহিম দুজনের মাঝেই বোঝাপড়াটা খুব ভালো। তাই সংগঠনের স্ট্র্যাটেজি মেকিং থেকে শুরু করে যেকোনো কাজেই আমরা দ্রুত বাস্তবায়নের দিকে অগ্রসর হতে পারি। সদস্যগণ চেয়েছেন, তাই আমরা আবারও দায়িত্ব নিয়েছি। সবার ভালোবাসা, আস্থা ও বিশ্বাসকে ধরে রেখে সামনে সংগঠনকে নতুন উচ্চতায় নেবার প্রয়াস থাকবে। আর এখন করোনা পরিস্থিতিতে আমাদের প্রথম চেষ্টা থাকবে, স্ব অবস্থান থেকে সহায়তায় এগিয়ে আসা। সবাই দোয়া করবেন আমাদের জন্য।”

উল্লেখ্য, ২০১৭ সালের ১০ মার্চ প্রতিষ্ঠার পর থেকে এখনও অবধি সারাদেশে জেলা-উপজেলা-বিশ্ববিদ্যালয় মিলিয়ে সঞ্জীবন – এর ৩৬ টি শাখা স্থাপিত হয়েছে। ইতোমধ্যে চীন -এ শাখা স্থাপনের মাধ্যমে দেশের গন্ডি ছড়িয়ে আন্তর্জাতিক পরিমন্ডলেও দেশের নাম উজ্জ্বলে করছে সঞ্জীবন। বিনামূল্যে রক্তদান কর্মসূচি এগিয়ে নিতে নানা পরিকল্পনা গ্রহণ ও বাস্তবায়ন, টেকসই বনায়ন পরিকল্পনা গ্রহণ, বন্যার্তদের ত্রাণ সহায়তায় দান, দরিদ্রদের মাঝে ঈদ সামগ্রী বিতরণ, শীতার্তদের শীতবস্ত্র বিতরণ, দরিদ্র ও মেধাবী শিক্ষার্থীদের মাঝে শিক্ষাসামগ্রী ও শিক্ষাবৃত্তি দান, স্বাস্থ্য ও সমাজ সচেতনতামূলক নানা ক্যাম্পেইন, বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি পরীক্ষার সময় সহায়তায় ডেস্ক স্থাপন সহ নানা রকমের সমাজসেবামূলক কার্যক্রমের মাধ্যমে সকলের আস্থার প্রতীক হয়ে উঠেছে সংগঠনটি।

পোস্টটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

আপনার মতামত কমেন্টস করুন