শিরোনাম
ত্রিশালে কবি নজরুল’র জন্মবার্ষিকী উদযাপনে প্যান্ডেল প্রস্তুতে পরিদর্শনে ইউএনও ত্রিশালে বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট ফাইনাল খেলায় পৌরসভা চ্যাম্পিয়ন ময়মনসিংহে জাতীয় কবি নজরুল ইসলাম’র জন্মবার্ষিকী উদযাপনে প্রস্তুতিমূলক সভা অনুষ্ঠিত ত্রিশাল আ’লীগের বর্ষিয়ান নেতা ফজলে রাব্বী’র সহধর্মিণীর মৃত্যুবার্ষিকী আজ নকলায় কাঠের সাকু ভেঙ্গে বটবটি উল্টে আহত তিন ত্রিশালের সাবেক এমপি’র মৃত্যু বার্ষিকীতে বিনম্র শ্রদ্ধা জানিয়েছেন মেয়র আনিছ ত্রিশালে সয়াবিন তেল ও যানজট নিরসনে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা ত্রিশালে দলের জন্য যোগ্য নেতা খোঁজে পেল জেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগ আ’লীগ সরকার নজরুল বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা করেছে বললেন, মেয়র আনিছ শব্দশরের আয়োজনে বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ১৬১ তম জন্মজয়ন্তী
শুক্রবার, ২০ মে ২০২২, ১০:৪০ অপরাহ্ন

ত্রিশালে দলের জন্য যোগ্য নেতা খোঁজে পেল জেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগ

রিপোটারের নাম / ১৫৬ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে
প্রকাশের সময় : শুক্রবার, ১৩ মে, ২০২২

ত্রিশাল(ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি

বাংলাদেশ আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবকলীগ
ময়মনসিংহ জেলার ত্রিশাল উপজেলার দীর্ঘ প্রতিক্ষার পর ইব্রাহীম খলিল নয়নের মত কর্মী বান্ধব জনপ্রিয় নেতাকে খোঁজে পেলো জেলা আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতারা।

গত ৭মে ময়মনসিংহ জেলা ময়মনসিংহ জেলার সভাপতি এড. এবিএম নূরুজ্জামান খোকন ও সাধারণ সম্পাদক উত্তম চক্রবর্তী (রকেট) আগামী ৩ বছরের জন্য জেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের প্যাডে ইব্রাহীম খলিল নয়নকে সভাপতি এবং আব্দুল্লাহ আল মাকসুদ খানকে সাধারণ সম্পাদক করে আংশিক কমিটি অনুমোদন দিয়েছেন।

কমিটি ঘোষণার সাথে সাথে ত্রিশালে হাজারো নেতা কর্মীরা আনন্দে উৎফোল্ল হয়ে বিভিন্ন এলাকায় মিষ্টি বিতরণ করেছেন। ত্রিশালে জয়বাংলার ত্যাগী নেতা-কর্মীও তাদের পরিবারেও এ নিয়ে আনন্দ ফুটে উঠেছে। ত্রিশালের সদ্য অনুমোদনকৃত স্বেচ্ছাসেবকলীগের কমিটি সময়ে সবচেয়ে শক্তিশালী কমিটি হিসেবে রূপ নেবে বলে স্থানীয় রাজনীতিবিদদের ধারণা।

ত্রিশালের নব অনুমোদিত কমিটির সভাপতির রাজনৈতিক জীবন বিশ্লেষণ করলে পাওয়া যায় যে, ২হাজার ১ সালে ইব্রাহীম খলিল নয়ন বিএনপি জোট সরকারের আমলে ছাত্রলীগে যোগ দেন। ২হাজার ২ সালে পৌর ছাত্রলীগের যুগ্ম আহবায়কের দায়িত্ব নিয়ে অত্যান্ত সাহসিকতার সাথে বিএনপি সরকারের বিরোদ্ধে রাজপথে আন্দোলন করেন। ২হাজার ৯ সালে উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতির প্রার্থী যখন ছিলেন ,সারা ত্রিশালে প্রতিটি ইউনিয়ন ও ওয়ার্ড পর্যন্ত কর্মী সৃষ্টি করে আলোচনার শীর্ষে ছিলেন এই ইব্রাহীম খলিল নয়ন। রাজনৈতিক লবিং আর যোগাযেগের কারণে দলের বড় দায়িত্ব না পেলেও কখনো হাল ছাড়েননি এই নেতা। ছোট অঙ্গ সংগঠন গুলোর দায়িত্ব মাথায় নিয়ে তার কর্মীদেরকে করে রেখেছেন উৎজ্জীবিত ও প্রানবন্ত তাই কখনো তাকে দেখা গেছে উপজেলা বঙ্গবন্ধু প্রজন্মলীগের সভাপতির দায়িত্ব পালনে, কখনো দেখা গেছে উপজেলা শেখ রাসেল স্মৃতি সংসদ এর দায়িত্ব পালন করতে। পরবর্তীতে জেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতারা ত্রিশাল উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের যুগ্ম আহবায়কের দাযিত্ব দিয়েছিলেন তাকে। দায়িত্ব পেয়ে ইব্রাহীম খলিল নয়ন দলকে সু-সংগঠিত করার লক্ষ্যে ত্রিশালের এক প্রান্ত থেকে আরেক প্রান্তে ছুটে চলেন।

এই তরুণ নেতার সাংগঠনিক দক্ষতা,যোগ্যতা ও জনপ্রিয়তা ত্রিশালের স্বেচ্ছাসেবকলীগের নেতা হিসেবে জেলার নেতৃবৃন্দ আর কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দের ফাইলে চলে যায় উজ্জল নক্ষত্র হিসেবে ইব্রাহীম খলিল নয়নের নাম। পক্ষ-প্রতিপক্ষের সমর্থনে অনেকের সুপারিশ থাকলেও দল ত্যাগী এক রাজপথের লড়াকু সংগ্রামী নেতাকে দায়িত্ব দিয়েছেন জেলার নেতারা।

 


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ