দৃষ্টান্ত হয়ে থাকবেন ডি সি মিজানুর রহমান

0
76

ফকরুদ্দীন আহমেদ//
সাড়া দুনিয়া যখন স্তব্ধ ও অাতংক। অদৃশ্য করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ বিস্তার যখন পৃথিবীর বায়ুমণ্ডলে মিশে মানুষকে আক্রমন করতে সিডরের মত ঘোরপ্যাঁচ খেলছে। দেশে-বিদেশে সুনামধন্য ব্যক্তিদের যখন প্রাণ কেড়ে নিচ্ছে ঠিক এ সময় মৃত্যুর ঝুঁকি উপেক্ষা করে জেলার সর্বত্রই করোনার সংক্রমন প্রতিরোধ করনীয় জনসচেতনতা সৃষ্টি করেছেন ময়মনসিংহের জনবান্ধব জেলা প্রশাসক ডিসি মিজানুর রহমান।

জেলা জুড়েই করোনাকালীন সময়ে সরকারের ত্রাণসামগ্রী ও সুরক্ষা সামগ্রী কর্মহীনদের মাঝে স্বচ্ছতার সাথে বিতরণ নিশ্চিত করে প্রমান করেছেন। বড় একটি চেয়ার দক্ষতার সাথে কাজ করলে সফলতা শতভাগ আসে।

এই জেলা প্রশাসক করোনার সংক্রমন বিস্তার শুরু থেকেই প্রথমে লকডাউন পরে সামাজিক দুরত্ব বঝায় জেলার বিভিন্ন অফিসে মাস্কের ব্যবহার, জনসাধারণের মাস্ক ব্যবহার, জনসচেতনতা ও খাদ্য সুরক্ষায় এখনো সার্বক্ষনিক পরিস্থিতি পর্যবেক্ষন করে চলছেন।

জেলার সকল উপজেলা,পৌরশহর ঘনবসতি, ইউনিয়ন ওয়ার্ড পর্যায়ে বসবাসরত নিন্ম আয়ের মানুষ, দুঃস্থ অসহায় কর্মহীনদেরও খোঁজ খবর রেখেছেন সমানভাবে। করোনায় আতংকিত মানুষদের আত্মবিশ্বাসী করে, করোনা যুদ্ধে জয়লাভ করার নানান কৌশল শিখাতে বিভিন্ন ভাবে প্রচারের ব্যবস্থা করে দিয়েছেন জেলা প্রশাসক মিজানুর রহমান।

বিশ্ববাসী মানব সভ্যতা যখন করোনায় আক্রান্ত ও মৃত্যুর মিছিলে দিশেহারা তখন করোনার সংক্রমন বিস্তার ঠেকাতে দেশের একজন যোদ্ধা হিসেবে ময়মনসিংহ জেলা নেতৃত্ব দিয়ে,সরাসরি মাঠে থেকেছেন এই বীরযোদ্ধা জেলা প্রশাসক।

সততার মহা শক্তি প্রয়োগ করে উপজেলা পর্যায়সহ জেলার প্রতিটি সরকারি উন্নয়নমূলক কর্মকান্ড গুলো সফল বাস্তবায়নে সাফল্য অর্জন করেছেন।
করোনায় সবচেয়ে বড় ক্ষতিগ্রস্ত শিক্ষা ব্যবস্থাতেও চোখ রাখছেন সার্বক্ষণিক তাই ছাত্র-ছাত্রীদের জীবনের কথা চিন্তা করে
জেলার প্রতিটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের জন্য অনলাইন শিক্ষা ব্যবস্থা চালু করে দিয়েছেন।
মানুষ কর্ম হারানো অর্থনৈতিক মন্দা কাটিয়ে উঠতে উপজেলা ও ইউনিয়নে কর্মরত কৃষি অফিসারদের নির্দেশ দিয়েছেন যাতে কৃষকেরা ফসল উৎপাদনের উপর উৎসাহের মাধ্যমে অনাবাদি জমিগুলোতেও ফসল উৎপাদন করেন।

জেলার প্রতিটি ভুমি অফিসে সমকালীন গ্রাহক হয়রানির চিরচারিত প্রথা ভেঙ্গে দিয়ে উন্নত গ্রাহক সেবা নিশ্চিত করেছেন। ভুমিহীনদের ভুমি প্রদান গৃহহীনদের গৃহপ্রদান করনসহ
করোনাকাল ও জনকল্যাণের কথা বিবেচনা করে চালু করেছেন জেলায় গণশুনানি।
জানাযায়, প্রতি বুধবার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত জুম ক্লাউডের মাধ্যমে জেলার বিভিন্ন এলাকার সমস্যা, মানবিক সহায়তা, ত্রাণ বিতরণসহ অন্য যে কোন বিষয়ে ময়মনসিংহের জেলা প্রশাসক সরাসরি ভিডিও কলে কথা বলে থাকেন। মানুষের কথাগুলো গুরুত্বের সাথে শুনেন, সমস্যার সমাধানও দিয়ে থাকেন। সামনের দিনগুলোতেও পাশে থাকবেন বলে প্রতিশ্রুতি দিচ্ছেন। করোনা কালের ভয়াবহতা ও দুঃচিন্তা কাটিয়ে মানুষের মুখে স্বস্থির হাসি ফুটিয়েছেন। সময়ের সেরা জনপ্রিয়তা জেলা প্রশাসক হিসেবে জেলারবাসীর সমর্থনও লাভ করেছেন।

ময়মনসিংহ জেলার কর্মস্থলকে নিজের এলাকা মনে করে সুখ, শান্তি, বিশ্রাম, আরাম সবই বিসর্জন দিয়েছেন এই জেলা প্রশাসক। প্রতি উপজেলায় কর্মকর্তা, কর্মচারী, জনপ্রতিনিধি ও বীরমুক্তিযোদ্ধাদের নিয়ে মতবিনিময় করছেন কিভাবে এলাকা উন্নয়ন, কিভাবে মানুষের উন্নয়ন, কিভাবে মানুষের জীবনমান উন্নয়ন করে দেশকে এগিয়ে নেওয়া যায়।
জেলার সকল মানুষের দায়িত্ব নিয়েই দায়িত্ব পালন করে, একজন সোনালী মানুষ হিসেবে নিজেকে সকলের কাছে নন্দিত হয়ে উঠছেন জেলা প্রশাসক মিজানুর রহমান।
একজন খাঁটি বাঙ্গালির সন্তান হিসেবে একজন খাঁটি বাঙ্গালি হয়ে বাঙ্গালি সমাজের সম্মানকে সবসময় প্রাধান্য দিয়ে চলেছেন এই জেলা প্রশাসক তাই করোনার দীর্ঘসময় মধ্যবিত্ত পরিবারের মাঝে মধ্যরাতে পরিচয় গোপন রেখে খাদ্য পৌঁছে দেওয়ার ব্যবস্থা করেছেন। কেউ অভাব দেখালে খালি হাতে ফিড়ে যাননি।

ময়মনসিংহে যোগদানের পর দুর্নীতির বিরোদ্ধে কঠিন হুঁশিয়ারি দিয়েছেন।তিনি বলে দিয়েছেন তাঁর অধিনস্থ কারও বিরুদ্ধে দুর্নীতি, অনিয়ম ও দায়িত্ব অবহেলার প্রমাণ পাওয়া গেলে সে যেই হোক ছাড় দেয়া হবেনা বলে দিয়েছেন।কঠিন চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দিয়েই অনিয়ম ও দুর্নীতির বিরুদ্ধে মাঠে নেমেছেন। জেলা প্রশাসকের কাছ থেকে অবৈধ উপায়ে ব্যক্তি স্বার্থ চরিতার্থ করতে ব্যর্থ হয়েছেন অনেক ক্ষমতাধর জনপ্রতিনিধিরাও।
বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা বিনির্মাণে শেখ হাসিনার আদর্শকে বুকে লালন করে দেশকে এগিয়ে নেওয়ার চেষ্টায় একজন নির্বিক যোদ্ধা হয়ে কাজ করছেন জেলা প্রশাসক মিজানুর রহমান।

সততা, নীতি, আদর্শ ও সাহসিকতায় বর্তমান সরকারের উন্নয়নমূলক পরিকল্পনা
বাস্তবায়নে জেলার সকল দপ্তরে অভাবনীয় সাফল্য অর্জন করে, বদলে যাওয়া বাংলাদেশ প্রজাতন্ত্রের দায়িত্ববান উন্নয়নযোদ্ধা জেলার সর্বোচ্চ পদের কর্মকর্তার দায়িত্ব পালন করায়, ময়মনসিংহ জেলায় দৃষ্টান্ত হয়ে থাকবে ডিসি মিজানুর রহমান।

পোস্টটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

আপনার মতামত কমেন্টস করুন