শিরোনাম
ত্রিশালে মৎস্য আহরণোত্তর সেবা কেন্দ্র উদ্বোধন ত্রিশাল থানা রোডে মহাদুর্ভোগ নিরসন করলেন মেয়র আনিছ পদ্মা সেতু উদ্ভোধন উপলক্ষে নকলায় আনন্দ মিছিল বানভাসি মানুষের সহায়তায় ত্রিশালের বিভিন্ন সংগঠন, সহযোগীতায় সমাজসেবীরা ত্রিশাল পৌরসভার প্রায় সাড়ে ৪৩ কোটি টাকার বাজেট ঘোষণা নিহত সাংবাদিক রতনের স্মরণে ত্রিশাল উপজেলা প্রেসক্লাবের মিলাদ ও দোয়া মাহফিল ত্রিশাল আ’লীগে লাখো মানুষের প্রত্যাশা রয়েছে মেয়র আনিছকে নিয়ে নওগাঁর মহাদেবপুরে হযরত মুহাম্মদ (সাঃ) কে নিয়ে ফেসবুকে অশালীন বাক্য পোস্ট করার অপরাধে আটক-১ ত্রিশালে তামাক নিয়ন্ত্রণ আইন বিষয়ক মতবিনিময় শরীয়তপুর জেলা যুব মহিলালীগের কর্মীসভা: জেলা কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা
বৃহস্পতিবার, ৩০ জুন ২০২২, ০৫:০৬ অপরাহ্ন

নকলায় কাঠের সাকু ভেঙ্গে বটবটি উল্টে আহত তিন

রিপোটারের নাম / ৫৯ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে
প্রকাশের সময় : সোমবার, ১৬ মে, ২০২২

 

মো. ফিরোজ উদ্দিন, নকলা উপজেলা প্রতিনিধিঃ

শেরপুরের নকলায় কাঠের সাকু ভেঙ্গে বটবটি নীচে পড়ে আহত হয়েছে শিশুসহ তিনজন। ঘটনাটি ঘটেছে ১৬ মে সোমবার সকাল ১১.৩০ মিনিটের সময়।

নামাকৈয়াকুড়ি-পলাশকান্দী গ্রামের উপর দিয়ে বয়ে যাওয়া সুতি নদীর উপর অবস্থিত পুরাতন ব্রীজটি ভেঙ্গে নতুন একটি ব্রীজ নির্মাণ করা হচ্ছে। ব্রীজটি ভেঙ্গে ফেলায় চলাচলের জন্য পশ্চিম পাশে বিকল্প একটি সাকু তৈরি করা হয়েছে। কিন্তু ঐ সাকুটি এতটাই দুর্বল যে, সামান্য মাল বুঝাই গাড়ি চলাচলেই ভেঙ্গে যাচ্ছে। আজও ধান বুঝাই একটি বটবটি সাকুর উপর উঠাতেই ভেঙ্গে নীচে পড়ে যায়। এতে আহত হয়েছে তিন জন। আহতরা হলো,বটবটি চালক মো. শাহিন মিয়া(৩৫), ধানের মালিক বাদল মিয়া (৩৪) ও তার ৭ বছরের শিশু সন্তান সাজিদ মিয়া। আহত তিনজনের বাড়ি একই এলাকা কৈয়াকুড়ি কান্দাপাড়ায়। তারা স্থানীয় ডাক্তারের চিকিৎসা নিয়ে বাড়ি ফিরে যায়।

এলাকাবাসী জানায়, মাত্র ৪ মাসের মতো হয়েছে সাকুটি তৈরি হয়েছে এই অল্প দিনেই এই অবস্থা। এর আগে ঠিকাদার আশরাফ আলী লিটুকে অনেকবার বলার পরও কোন সমাধান হয়নি।ব্রীজের কাজ চলমান কিন্তু সাকুটি বার বার বলার পরও মেরামত করা হয়নি। এটি একটি ব্যস্ত রাস্তা, অসংখ্য গাড়ি চলাচল করে এই রাস্তা দিয়ে। এই দুর্বল সাকু থাকলে যেকোন সময় বড় ধরনের দুর্ঘটনা ঘটে যেতে পারে। সাকু ভেঙ্গে মাটি দিয়ে ভরাট করে রাস্তা বানানোর দাবি জানান এলাকাবাসী।

স্থানীয় চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আব্দুস ছালাম সরকার ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে বলেন, ঠিকাদারের সাথে কথা বলে খুব দ্রুত এই সাকু মেরামতের ব্যবস্থা করা হবে। ঠিকাদার আশরাফ আলী লিটু বলেন, আমি এই রাস্তাটি ইট দিয়ে তৈরি করতে চেয়েছিলাম। কিন্তু উপজেলা ইন্জিনিয়ার এর কারণে সেটা সম্ভব হয়নি। তাই বাধ্য হয়ে এই সাকু তৈরি করতে হয়েছে। এখন এটি শক্ত করে মেরামত করা হবে।

উপজেলা প্রকৌশলী আরেফিন পারভেজ বলেন, ব্রীজ তৈরি করার সময় ব্রীজের পাশে নদী থাকলে সেক্ষেত্রে পানি চলাচল স্বাভাবিক রাখতে সাকু তৈরি করা হয়। কিন্তু পাইলিং করার সময় সাকুর খুটির মাটি সরে গিয়ে দুর্ঘটনাটা ঘটেছে। এ ব্যাপারে ঠিকাদারকে বলা হয়েছে, দ্রুত এটি মেরামত করে দেওয়া হবে।
উল্লেখ্য যে, ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের নাম এসআরএস কনস্ট্রাকশন। ব্রীজটি তৈরির মোট বাজেট হলো ২ কোটি ৮৬ লক্ষ টাকা।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ