মুক্তাগাছায় বুদ্ধি প্রতিবন্ধী ধর্ষন; মামলা তুলে নেয়ার হুমকি

0
582

মোঃ রবিউল আউয়াল রবি,ময়মনসিংহ:
ময়মনসিংহের মুক্তাগাছা উপজেলার কুমারগাতা গ্রামের তেউর পাড়ায় দিনে-দুপুরে এক বুদ্ধি প্রতিবন্ধী কিশোরী (১০) ধর্ষিত হয়। এ ঘটনায় ওই প্রতিবন্ধীর বাবা মুক্তাগাছা থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনের ২০০০(সং-০৩) এর ৯(১) ধারায়,মামলা নং-২২, ২০/০৫/১৭ সালে একটি মামলা দায়ের করে , প্রতিবেশী ধর্ষক সুমন মিয়া(৩০) এর নামে। এলাকার কয়েকজন বাসিন্দা সূত্রে জানা যায়, ওই প্রতিবন্ধী কিশোরীর বাবা-মা বিভিন্ন জায়গায় কাজ করেন। প্রতিদিনের মতো ১৪/০৫/১৭ তারিখে তাঁরা দুইজনই মেয়েকে বাড়িতে রেখে কাজে চলে যান। এ সুযোগে পাশের বাড়ির দুই সন্তানের পিতা সুমন মিয়া মেয়েকে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে কিছুটা দূরের কলা বাগানে জোর পূর্বক ধর্ষন করে। তার ডাক-চিৎকারে পাশের বাড়ির শিল্পী নামে এক প্রতিবেশী গুরুতর অবস্থায় উদ্ধার করে । পরবর্তীতে ঘটনাটি এলাকায় জানাজানি হলে ধর্ষক পালিয়ে পড়ে।বিষয়টি নিয়ে একদিন পর এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিরা শালিশের মাধ্যমে পচিশ হাজার টাকায় মিমাংসা করতে চাইলে বাদী তাতে রাজী না হয়ে ন্যায় বিচারের আশায় থানা পুলিশের শরণাপ্ন হয়।আসামী দীর্ঘদিন ধরা-ছোঁয়ার বাহিরে থেকে শেষমেশ আদালতে আত্বসমর্পণ করে জামিনে বের হয়ে যায়। মুক্তাগাছা থানার পুলিশ প্রাথমিকভাবে তদন্ত সাপেক্ষে ২২/০৯/১৭ তারিখে অভিযোগপত্র নং-২৫১, আদালতে দাখিল করে।নির্যাতিতার দাদা জানান, আসামী ও তার পরিবারের লোকজন প্রভাবশালী হওয়ায় নানা ভাবে মামলা তুলে নিতে হুমকি দিয়ে আসছে, আমরা খুব আতংকে জীবন-যাপন করছি। কিশোরীর বাবা ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, আমি আইনের কাছে এই নিষ্ঠুরতার কঠিন বিচার চাই ,আর যাতে কেউ কোন মেয়ের জীবন নষ্ট না করতে পারে। মেয়ের মা বলেন, আমরা বাড়িতে থাকতে ভয় পাই সুমনের বউ ও তার লোকজন বিভিন্নভাবে ভয়ভীতি দেখাচ্ছে কেন মামলা তুলে নিচ্ছি না ,আমার দাবী যাতে সরকার আমাদের ন্যায় বিচার দেয়। এলাকাবাসীর দাবী যাতে খুব দ্রুত আইনের আওতায় এই ধর্ষকের বিচার হয়।

পোস্টটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

আপনার মতামত কমেন্টস করুন