1. info@pollysangbad.com : polazhar :
শিরোনাম :
ময়মনসিংহের কোতোয়ালী পুলিশের অভিযানে বিদেশী পিস্তলসহ জজ মিয়া গ্রেফতার ত্রিশাল সরকারি প্রাঃ বিদ্যালয় এবিএম আনিছুজ্জামান এমপিকে সংবর্ধনা ত্রিশালে বিশ্ব তামাক মুক্ত দিবস পালিত ত্রিশালে জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের জন্মবার্ষিকী উদযাপনে দ্বিতীয় দিন ত্রিশালে ইউপি সদস্য কামাল হোসেন আজীবন জনগনের সেবা দিতে চান ত্রিশালে কবি নজরুলের ১২৫তম জন্মবার্ষিকী পালনে প্রস্ততি সভা অনুষ্ঠিত ত্রিশালে সংকল্প একাডেমীর বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগীতা অনুষ্ঠিত ত্রিশালে শিলাবৃষ্টিতে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা পরিদর্শন করলেন আনিছুজ্জামান এমপি ত্রিশালে শিলাবৃষ্টিতে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি জনগনের সেবা দিতে অফিস উদ্বোধন করলেন আনিছুজ্জামান এমপি

ভালো কাজের অঙ্গিকারের মাধ্যমে শুরু হোক নতুন বছর

  • আপডেট সময় সোমবার, ১ জানুয়ারী, ২০২৪
  • ২২৩ বার পড়া হয়েছে

 

সময়,গলিত বরফের টুকরার ন্যায় শেষ হতে থাকে।মনে হচ্ছে এই যে কদিন আগে না ২০২৩ সালে পা দিয়েছিলাম অথচ আল্লাহর শুকরিয়া ২০২৩ সালকে অতিক্রম করে আমরা আজ ২০২৪ সালে পেীছেগেছি।এর মাঝে চলেগেছে কত জিবন্ত প্রাণ,কতজনের কত আত্মীয়,পরিবার,পরিজন।পিছনে রেখে এসেছি কতশত মন্দ স্মৃতি অথবা ভালো স্মৃতি।ভালো কাজের দরুন পিছনে রেখে এসেছি হয়তোবা কারো দোয়া,ভালবাসা অথবা কারো ঘৃণা,অভিশাপ।জিবন চলার পথে যার খাতায় যত কম পাপ,অন্যায়,অত্যাচার,হিংসা বিদ্বেষ বিদ্যামান সেই তো মানুষ হিসেবে তত সফল।

আমরা মুসলিম,আমরা বাঙ্গালী, আমাদের আছে নিজস্ব সংস্কৃতি,কৃষ্টি ,কালচার।তবে বর্তমানে আমরা ত্রিমুখি সংস্কৃতির খোলসে আবদ্ধ।কেউ মুসলিম সংস্কৃতি,কেউ ভারতীয় সংস্কৃতি কেউবা পাশ্চার্ত সংস্কৃতি।

নতুন বছর পালনের সংস্কৃতি সম্পর্কে জানা যায়,খ্রিস্টপূর্ব চতুর্থ সহস্রাব্দের কাছাকাছি সময়ে তৎকালীন ব্যাবিলনে। সে উৎসব ব্যাবলিনীয়রা পালন করত বসন্তে, মার্চের শেষভাগে যখন বিষুব অঞ্চলে দিন ও রাত সমান দৈর্ঘ্যে উপনীত হতো। দিনটি তারা স্মরণীয় করে রাখতো ‘আকিতু’ নামে জাঁকজমকপূর্ণ এক ধর্মীয় উৎসব আয়োজনের মাধ্যমে। ব্যাবিলনীয়নদের পৌরাণিক কাহিনী অনুযায়ী, আকাশের দেবতা মারদুক এক ভীষণ রক্তক্ষয়ী যুদ্ধে সমুদ্রের পিশাচিনী তিয়ামাতকে পরাজিত করেন। ব্যাবিলনীয়দের আকিতু উৎসব ছিল সে বিজয়গাথাকে স্মরণ করার উৎসব। এটিকেই তারা নববর্ষ হিসেবে পালন করত। উৎসবটির রাজনৈতিক তাৎপর্যও কম ছিল না। এদিন নতুন ব্যাবিলনিয় রাজাকে মুকুট পরিয়ে দেয়া হতো, অথবা পুরাতন রাজার শাসন দন্ডকে প্রতীকিভাবে নবায়ন করা হতো।

প্রকৃত অর্থে যে নিজেকে যে সংস্কৃতির আবদ্ধে লালিত করে সে তো সেদিকেই ধাবিত হবে।বিশ্বনবী মুহাম্মদ সা: বলেছেন,‘যে অন্য জাতির সঙ্গে আচার-আচরণে, কৃষ্টি-কালচারে সামঞ্জস্য গ্রহণ করবে সে তাদের দলভুক্ত বিবেচিত হবে।’ (আবু দাউদ)

অথচ আমরা মুসলিম একজন শান্তপ্রিয় মানুষ হিসেবে আজকাল নতুন বছর উদযাপনের নামে যা করে বেড়াচ্ছি তা কোনক্রমেই একজন ভদ্র সভ্র মানুষের কর্ম নয়।আজকাল নতুন বছর উদযাপন করা হয় আতশবাজির বিকট শব্দের মাধ্যমে যাতে অসুস্থ,বয়োজেষ্ঠ এবং শিশুদের জন্য মারাত্মক ক্ষতির কারন হতে পারে।২০২২ সালে এই আতশবাজির শব্দে চার বছর বয়সী শিশু ওমায়ের হার্ট ফেল করে পরবর্তীতে মারা যায় এমন কত জানা অজানা ঘটনাই না ঘটছে নতুন বছর উদযাপনের নামে এই আতশবাজিতে।প্রশাসনের জুর নিষেধ থাকা সত্তেও ধুম আতশবাজি চলে।তার সাথে যুক্ত হয় আগুনের ফানুশ ওড়িয়ে বর্ষবরণ।দু:খজনক হলেও সত্য যে আমরা মানুষ হিসেবে এতটাই খামখেয়ালি হয়েগেছি যে এই ফানুশ ওড়ানোর মাধ্যমে কারো ঘর বা দোকানে আগুন লাগছে কিনা ,কোন ক্ষতি হচ্ছে কিনা এমনটাও ভাবি না।গতকাল ৩১ ডিসেম্বর ২০২৩ পুরান ঢাকায় ফানুশের আগুনে পুড়ে ছাই হল একটি দোকান,যা একজন দোকানির শত স্বপ্নকে লালন করে।আজকাল নতুন বছর উদযাপনের আরেকটি নিয়মিত চিত্র হল পার্কে বা ঝোপঝাড়ে ছেলেমেয়েদের অশ্লিলতা,বেহায়াপনা।অবৈধ সম্পর্কের ছড়াছড়ি,পরকীয়াসহ নানা অশ্লিলতায় এদিনটি বরপুর থাকে পার্ক,রিসোর্টগুলোতে।এর সাথে মাদকের ছড়াছড়ি তো থাকেই যারা কখনো মাদকাসক্ত না তাদেরকেও দেখা যায় সাথীবর্গের আমন্ত্রনে এদিন মাদকের নেশায় মত্ত হতে।সর্বোপরি নতুন বছরের এমন গুরুত্বপূর্ণ দিনটিকে আমরা অন্যায়,আশ্লিলতা,বেহায়াপনা, আতশবাজির শব্দের মাধ্যমে শব্দদুষণ,মাদকসহ নানা অপরাধমূলক কর্মকান্ড পরিচালিত হওয়ার দিন হিসেবে বেছে নিয়েছি।অথচ আমাদের উচিত এদিনটিতে অঙ্গীকার করা যে,২০২৩ সালে যত অন্যায়,অপরাধ,অশ্লিলতা করেছি তা থেকে নিজেকে বিরত রাখবো।আমাদের অঙ্গিকার করা উচিত বিগত সালে যাদের সাথে অন্যায় করেছি,খারাপ আচরন করেছি তাদের কাছে ক্ষমা চেয়ে নিজেকে শুধরিয়ে নেওয়া।

আসুন ২০২৪ সালের আজকের প্রথমদিনটিতে প্রতিঙ্গা করি আর কখনো পরিবারের কারো সাথে খারাপ আচরন করবো না,প্রতিঙ্গা করি পিছনের শত ভুল ত্রুটি শুধরিয়ে সামনের দিনগুলো সুন্দর গোছানো কাটাবো,সকল অন্যায় থেকে নিজে এবং অপরকে বিরত রাখবো।

ভালো কাজের অঙ্গিকারের মাধ্যমে শুরু হোক নতুন বছর, দেশ জাতি ও গণমানুষের সুন্দর, সুস্বাস্থ্য কামনায় ২০২৪ সাল সাফল্যের সাল হিসেবে বিবেচিত হোক,শুভ কামনা।

 

আজাহারুল ইসলাম আজাহার

সাংবাদিক ও কলামিস্ট।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো ক্যাটাগরি
© All rights reserved © 2019 ’পল্লী সংবাদ’
Site Customized By NewsTech.Com